বাঙালি নায়িকার বস্তাবন্দি দ্বি-খণ্ডিত দেহ উদ্ধার, আটক স্বামী

বাঙালি নায়িকার বস্তাবন্দি দ্বি-খণ্ডিত দেহ উদ্ধার, আটক স্বামী

ব্যুরো রিপোর্ট:  সোমবার দুপুরে কেরানীগঞ্জের হজরতপুর সেতুর পাশে দুটি বস্তায় অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমুর বস্তাবন্দি টুকরো করা লাশ পাওয়া যায়। অভিনেত্রীর বোন ফাতেমা জানিয়েছেন,

রবিবার সকালে শ্যুটিংয়ের জন্য বাড়ি থেকে বার হন শিমু, তাঁকে ফোনে না পাওয়া গেলেও শুরুতে সন্দেহ হয়নি। কিন্তু সন্ধ্যার পরেও বাড়ি ফেরেনি শিমু, বন্ধ ছিল মোবাইল, এরপর ওই দিন রাতে থানায় জেনারেল ডাইরি করা হয় পরিবারের তরফে।

কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই উদ্ধার হল অভিনেত্রীর দ্বিখণ্ডিত দেহ।ঢাকার গ্রিনরোডে স্বামী ও দুই সন্তান নিয়ে থাকতেন শিমু। কেরানীগঞ্জ থানার ওসি বলেন, অন্য কোথাও ধারালো অস্ত্র দিয়ে নৃশংভাবে খুন করা হয়েছে শিমুকে।

এরপর দু-টুকরো দেহ বস্তাবন্দি করে সেতুর পাশে দেহ ফেলে রাখা হয়েছে। পরিকল্পিতভাবেই খুন করা হয়েছে অভিনেত্রীকে, তা স্পষ্ট বলছে পুলিশ।

শিমুর সহকর্মীদের অভিযোগ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বিদায়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক তথা অভিনেতা জায়েদ খান খুন করেছে অভিনেত্রীকে। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্য ছিলেন শিমু।

আসন্ন নির্বাচনে ১৮৪ জনের সঙ্গে তার সদস্য পদ স্থগিত করা হয়, এরপর জায়েদ খানের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন মৃত অভিনেত্রী। এই বিষয় নিয়ে বিবাদ চরমে পৌঁছেছিল।

জায়েদের দাবি, শিমু হত্যা মামলায় তাঁকে ফাঁসানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে। জায়েদের পাশে দাঁড়িয়ে নায়িকার ভাই দাবি করেন, স্বামীই হত্যা করেছে শিমুকে। সোমবার রাতেই এই হত্যা মামলায় পুলিশ আটক করেছে শিমুর স্বামী নোবেলকে, চলছে ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.