ব্যান্ডেলে ফের কাজের জন্যে একমাস বাতিল একাধিক লোকাল! চরম ভোগান্তির আশঙ্কা

ব্যান্ডেলে ফের কাজের জন্যে একমাস বাতিল একাধিক লোকাল! চরম ভোগান্তির আশঙ্কা

ব্যুরো রিপোর্ট:  দীর্ঘ কয়েক ঘন্টা ধরে বন্ধ ছিল ব্যান্ডেল শাখার রেল চলাচল! বর্ধমান সহ বিভিন্ন জায়গা থেকে ঘোরানো হয় একাধিক ট্রেন। যা নিয়ে চরমে উঠেছিল যাত্রী বিক্ষোভ। যদিও সম্প্রতি সেই কাজ শেষ হয়েছে। অত্যাধুনিক ‘ইলেকট্রনিক ইন্টারলকিং সিস্টেম’ কার্যকর কআ হয়েছে।আর তা হতে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়েছে পরিস্থিতি।

তবে ফের একবার কাজ শুরু হতে চলেছে বলে খবর। ওই লাইনেই ফের কিছু কাজ করার কথা রয়েছে। আর তা চলবে একমাস ধরে। এমনটাই খবর।জানা যাচ্ছে, ‘ইন্টারলকিং সিস্টেম’ সংক্রান্ত কাজ শুরু হচ্ছে। আর তা হবে শনিবার থেকে। তবে এবার এই কাজ একটু লম্বা সময় ধরে হবেই বলেই রেল সুত্রে খবর।

আর সে জন্যে আজ শনিবার থেকেই দশটি লোকাল ট্রেন বাতিল থাকবে বলে জানিয়েছে পূর্ব রেল। আর তা একমাস কার্যকর থাকবে বলে জানা যাচ্ছে। পরের জুলাই অর্থাৎ চার জুলাই থেকে পরিস্থিতি ঠিক হবে বলে রেলের দাবি।

অর্থাৎ সেদিন থেকেই স্বাভাবিক সূচি মেনে লোকাল ট্রেন চলবে বলে রেলের তরফে খবর।ফলে লম্বা এই একমাস ব্যাপক সমস্যার মধ্যে পড়তে হবে নিত্য যাত্রীদের। তবে রেলের তরফে সবরকম ভাবে পরিষেবা ঠিক করার কথা বলা হয়্বছে।

শুধু তাই নয়, মানুষের যাতে সমস্যা কোন না হয় সেজন্য বাড়তি ব্যবস্থা রেল রাখছে বলেই খবর।পূর্ব রেলের পক্ষে জানানো হয়েছে, একমাস হাওড়া থেকে ছাড়া দু’টি ব্যান্ডেলগামী ট্রেন বাতিল থাকবে। এমনকি একটি মেমারিগামী আপ ট্রেনও বাতিল হচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে।

এমনকি ব্যান্ডেল থেকে কাটোয়া, বর্ধমানের দিকে যাওয়া ট্রেনগুলিও বাতিল থাকবে বলে জানা যাচ্ছে। এমনকি হাওড়ার দিকে আসা লোকালও একমাস ধরে চলবে না। এছাড়াও আরও একটি লোকাল ট্রেন বন্ধ থাকবে বলে জানা যাচ্ছে।

আগামী একমাস এই পরিস্থিতি বজায় থাকবে বলে জানানো হয়েছে।এই প্রসঙ্গে অবশ্য একাধিক সংবাদমাধ্যমকে পূর্ব রেলের জনসংযোগ আধিকারিক জানিয়েছেন, ব্যান্ডেলে বড় মাপের কাজ হচ্ছে। ‘ইলেকট্রনিক ইন্টারলকিং সিস্টেম’ খুবই অত্যাধুনিক একটি ব্যবস্থা।

আর সেজন্যে কিছু কাজ এখনও বাকি রয়েছে বলে জানিয়েছেন জনসংযোগ আধিকারিক। আর সেগুলি করা দরকার। আর সবদিক ভেবে চিনতেই লোকাল ট্রেন কমাতে হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে রেলের তরফে।

তবে ট্রেন বাতিলের ক্ষেত্রে অবশ্যই যাত্রীদের ভোগান্তীর কথাটা মাথায় রাখা হয়েছে বলে দাবি পূর্ব রেলের জনসংযোগ আধিকারিকের। আর সেই কারণে জেগুলিতে সমস্যা কম সেই ট্রেনগুলিই বাতিল হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। ফলে এখন দেখার কীভাবে যাত্রী ভোগান্তি মেটাতে রেল কাজ করে।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.