তৃণমূলে রদবদল আসন্ন, রিটার্নিং অফিসার হয়েই সাংগঠনিক নির্বাচনের বাদ্যি বাজালেন পার্থ

তৃণমূলে রদবদল আসন্ন, রিটার্নিং অফিসার হয়েই সাংগঠনিক নির্বাচনের বাদ্যি বাজালেন পার্থ

ব্যুরো রিপোর্ট:  তৃণমূল কংগ্রেস অবশেষে সাংগঠনিক নির্বাচনের রাস্তায় হাঁটছে। দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠক করে ঘোষণা করেছেন, আগামী ২ ফেব্রুয়ারি হবে তৃণমূলের সাংগঠনিক নির্বাচন।

তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আগেই মনোনীত করা হয়েছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এবার সর্বভারতীয় স্তরে সাংগঠনিক রদবদল হবে।২০২২-এর মার্চের মধ্যেই সাংগঠনিক নির্বাচন মিটিয়ে নিতে চেয়েছিল তৃণমূল।

সেইমতোই ২ ফেব্রুয়ারিই তার দিনক্ষণ ঘোষণা হয়ে গেল। দলের মাথায় থাকবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সর্বভারতীয় সভানেত্রীর পদ অলঙ্কৃত করবেন তিনি। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক এবং সুব্রত বক্সি থাকবেন রাজ্য সভপাতি।

তবে দেশের নিরিখে দলের পরিকাঠামো তৈরি ও বেশ কিছু পদে রদবদল আসন্ন।তৃণমূল কংগ্রেসের সাংগঠনির নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার হিসেবে নিয়োগ করা হয়ছে দলের বর্তমান মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে।

এই নিয়োগ পত্র পাওয়ার পর দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ও রাজ্য সভাপতির সঙ্গে বৈঠকের পর পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিক বৈঠক করে সাংগঠনিক নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা করেন।তৃণমূলের তরফে স্থির হয়েছে, নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে করোনা বিধি মেনে এই নির্বাচন হবে।

এর আগে দলের সাংগঠনিক নির্বাচন হয়েছে ২০১৭ সালে। তারপর ২০২২-এ ফের সাংগঠনিক নির্বাচন হতে চলেছে। পার্থবাবু জানিয়েছেন, যাঁরা ভোট দেবেন এবং যাঁরা অবজার্ভার হবেন, তাদের একটি তালিকা ২৫ জানুয়ারি মধ্যে তৈরি করা হবে।

পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, এখনও পুরো বিষয়টি দলীয় স্তরে জানানো হয়নি। এটা শুধুই দিনক্ষণ ও স্থান ঘোষণা করা হল সংবাদমাধ্যমে। তালিকা প্রস্তত হয়ে গেলে নির্বাচনী নির্ঘণ্ট নিয়ে দলীয় স্তরে জানানো হবে।

সাংগঠনিক নিয়ম মেনে প্রাথমিকভাবে নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু হবে তারপর। সংবিধান মেনেই এই ভোটাভুটি হবে।পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, সংবিধান মেনে সাংগঠনিক নিয়মে প্রাথমিকভাবে নির্বাচন হবে চেয়ারপার্সন পদের জন্য। তারপর অন্যান্য পদের নির্বাচন হবে।

তৃণমূলের সাংগঠনিক নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার পর এই মুহূর্তে সবার নজর সেইদিকেই। পুরসভা নির্বাচন পিছিয়ে গিয়েছে প্রায় তিন সপ্তাহ। তাই এর ফাঁকে তৃণমূল চাইছে নিজেদের দলের সাংগঠনিক নির্বাচন ও রদবদল সেরে নিতে।

এদিন দলের অন্দরের কোন্দল নিয়ে মুখ খুলতে চাননি মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তবে তিনি জানিয়ে দেন তৃণমূলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কোনও বিকল্প তৈরি হয়নি।

যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার তিনিই নেবেন। তবে দল এখন অনেক বড় হয়েছে। দলের সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বাকি সিদ্ধান্ত তিনি নেবেন।

administrator

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.